কাবাব চিনি একটি সুগন্ধী মশলা যা গোলমরিচের মতো দেখতে হয়। এটি একটি কালো গোল মরিচের একই পরিবারের অন্তভুক্ত। কাবাব চিনি কর্পূর এবং ইউক্যালিপটাসের বৈচিত্র সহ এর একটি তীক্ষ্ণ ও কিছুটা তেতো স্বাদযুক্ত আছে। কাবাব চিনি ভারত, ইন্দোনেশিয়া এবং মরোক্কোর রান্নায় ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এটি গরম মশলা-মিশ্রণ, বিরিয়ানি, তরকারি, স্যুপ, এবং স্টু মত বিভিন্ন রান্না ব্যবহার হয়, যা খাবারের একটি স্বতন্ত্র স্বাদ এবং সুগন্ধ আনে। কাবাব চিনি চা তৈরিতেও ব্যবহার করা যেতে পারে, যার অনেকগুলি স্বাস্থ্যকর উপকারিতা রয়েছে বলে যানা যায়


কাবাব চিনির উপকারিতা

১.মাইগ্রেনের সমস্যা সমাধান: মাথাব্যথার সমস্যায় কাবাব চিনি ব্যবহার করতে পারেন। কাবাব চিনিতে রয়েছে প্রদাহরোধী গুণ, যার কারণে মাথাব্যথা উপশম করা যায়।যারা মাইগ্রেনের সমস্যায় ভুগছেন, তাদেরও কাবাব চিনি ব্যবহার করা উচিত। কাবাব চিনি ব্যবহার করতে এর গুঁড়া বানিয়ে তাতে নারকেল তেল মিশিয়ে মাথায় মালিশ করলে মাথা ব্যথা উপশম হবে।

২. ক্লান্তি দূর করতে: কাবাব চিনি আপনাকে ক্লান্তি দূর করতেও সাহায্য করতে পারে। কাবাব চিনির গুঁড়া নিয়ে তাতে দারুচিনি ও লেমনগ্রাস মিশিয়ে দুই কাপ জলে ফুটিয়ে নিন। জল অর্ধেক থেকে গেলে পান করুন। এই মিশ্রণটি পান করলে আপনি শক্তি অনুভব করবেন।

৩. নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধ দূর করে: যদি নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধ থেকে সহজেই মুক্তি পেতে চান, তাহলে এর জন্য এক চামচ কাবাব চিনির গুঁড়া দারুচিনির সঙ্গে মিশিয়ে এক কাপ জলে রাখুন। এবার আধা ঘণ্টা পর এটি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন, মুখের দুর্গন্ধ চলে যাবে।

৪. শ্বাসকষ্টের সমস্যা: ঠাণ্ডা-সর্দির সমস্যায় শ্বাসকষ্টের কারণে শ্বাসকষ্ট হলে কাবাব চিনিতে তেল মিশিয়ে বাষ্পের গন্ধ নিতে পারেন। এটি শ্বাস প্রশ্বাসকে সহজ করে তোলে এবং যানজটে স্বস্তি দেয়। এটি কাশি এবং ব্রঙ্কাইটিসের প্রভাব কমায়।

৫. পাকস্থলীর জন্য উপকারী: কাবাব চিনি পাকস্থলীর জন্য খুবই উপকারী কারণ এতে পাচনতন্ত্র সুস্থ রাখার বিশেষ ক্ষমতা রয়েছে। এটি কোলেস্টেরলযুক্ত খাবার হজম করতে সাহায্য করে।

৬. প্রদাহ-বিরোধী: কাবাব চিনিতে প্রদাহ-বিরোধী বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা মূত্রনালীর সংক্রমণ, গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল সমস্যা এবং আর্থ্রাইটিস এর মতো অবস্থার চিকিৎসায় সহায়ক হতে পারে।

৭. কিডনিতে পাথর কমাতে: একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে কাবাব চিনিতে ফ্ল্যাভোনয়েড এবং অ্যালকালাইনের উপস্থিতি প্রস্রাবের গঠন পরিবর্তন করে কিডনিতে পাথর কমাতে পারে। কাবাব চিনিও সিরাম ইউরিয়া এবং ক্রিয়েটিনিনের মাত্রা কমায়।

৮.স্রাবের সমস্যায়: আপনি যদি যোনিপথে স্রাবের সমস্যায় অস্থির থাকেন, তাহলেও আপনি কাবাব চিনি ব্যবহার করতে পারেন। এক গ্লাস জলে কাবাব চিনির গুঁড়া মিশিয়ে স্প্রে বোতলে রেখে গোপনাঙ্গে স্প্রে করুন। এই সমস্যা নিয়ন্ত্রনে আসবে।

৯ .অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট: কাবাব চিনিতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে যা কোষের ক্ষতি থেকে রক্ষা করতে এবং ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে সহায়ক হতে পারে।

১০. জীবাণুনাশক: কাবাব চিনিতে জীবাণুনাশক বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা ব্যাকটেরিয়া এবং ছত্রাক সংক্রমণ প্রতিরোধ করতে সহায়ক হতে পারে।

সর্বশেষ কাবাব চিনি একটি নিরাপদ মশলা যা বেশিরভাগ লোক খাদ্য হিসাবে গ্রহণ করতে পারেন। তবে, কিছু লোকের কাবাব চিনিতে অ্যালার্জি থাকতে পারে। যদি আপনি কাবাব চিনিতে অ্যালার্জি থাকে তবে এটি এড়ানো উচিত।




Write a review

Note: HTML is not translated!
    Bad           Good

Kabab Chini Powder ( কাবাব চিনি গুড়া ) ১০০গ্রাম

  • Product Code: Product 71
  • Availability: In Stock
  • /-425.00

  • Ex Tax: /-425.00

This product has a minimum quantity of 1000

Tags: কাবাব চিনি/ কাবাব চিনির ব্যবহার/ কাবাব চিনির গুনাগুন/ কাবাব চিনির উপকারিতা/Kabab chini